৪০+ ফেসবুক টিপস এবং ট্রিকস। 40+ Facebook Tips and Tricks

Table of Contents

ফেসবুকের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে

ফেসবুকের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে, User name/Phone Number/Email দিয়ে ঐ
আইডি ফিরে পাওয়া যায়। আপনি প্রথমে ফেসবুকে ডুকে email ও পাসওয়ার্ড দেওয়ার বক্সের নিচে forget pasword নামে একটি অপশান দেখবেন।সেটাতে ক্লিক করুন। তারপর আরেকটি বক্স পাবেন। সেখানে, আপনার FaceBook যদি email দিয়ে খোলা হয় তাহলে email আর ফোন নাম্বার দিয়ে খোলা হলে ফোন নাম্বার লিখে সার্চ দিন। দেখবেন আপনার আইডিটি দেখাবে। তারপর এটা আপনার আইডি স্বীকার করে কন্টিনিউ চাপবেন।
তারপর আপনার দেয়া নাম্বার অথবা ইমেইলে একটা ম্যাসেজ যাবে এবং ম্যাসেজে একটা কোড থাকবে সেটা ঐ পেজে কোডের জায়গায় কোড বসিয়ে কন্টিনিউ চাপলে নতুন পাসওয়ার্ড দিতে বলবে। তখন আপনি আপনার ইচ্ছে মত পাসওয়ার্ড দিতে পারবেন।
আর এভাবেই আপনি আপনার ফেসবুক আইডি আবার ফিরে পাবেন।

ফেসবুক আইডির নিরাপত্তায় ৭ টি মন্ত্র

আজকের দিনের টেক সচেতন একজন ব্যাক্তিকে যদি জিজ্ঞেস করেন তার ফেসবুক আইডি আছে কিনা? এবং উত্তর না হবে এটা খুজে পাওয়া ভার। কারন আজকাল ব্যক্তিগত প্রয়োজন থেকে শুরু করে ব্যবসায়িকসহ প্রায় সব কাজেই এখন ফেসবুক চাহিদা মিটাচ্ছে। এই যেমন চ্যাটিং, ভয়েস কল কিংবা সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল দূরে থেকেও কাছে থাকা। আর ফেইসবুকের জনপ্রিয়তার প্রমান আপনারা গত কয়েক বছরের দিকে তাকালেই পেয়ে যাবেন। ইন্টারনেট ওয়ার্ল্ড জায়েন্ট, গুগলকে কে না চিনে, সেই গুগলকে পিছনে ফেলে সবচেয়ে বেশি ভিজিটেড সাইট হিসেবে উঠে এসেছে ফেইসবুক । অবশ্য ২০১০ এ এই ফেইসবুক ১০ এর ঘরেই ছিলো, এবং বিগত ৩-৪ বছর তারা সামনেই আগাচ্ছে। ফেবুর জনপ্রিয়তার প্রতিদ্বন্ধি হিসেবে গুগল প্লাস মাঠে আছে তাই দেখা যাক গুগল আর এফবির খেলায় কে যেতে।
ফেসবুক আইডির নিরাপত্তায় ৭ টি মন্ত্র
খেলায় যেই জিতুক শেষ পর্যন্ত আজকে আমরা আলাপ করবো ফেইসবুক আইডির নিরাপত্তা নিয়ে। নিচে দেখা যাক এর প্রতিরোধের কিছু উপায়, যা অবলম্বন করলে হয়তো আপনি ক্ষতি থেকে আপনার আইডি রক্ষা করতে পারবেননা, কিন্তু অনেকটা সুবিধাজনক পর্যায়ে রাখতে পারবেন।
১. হুমকি ধামকি চলবেনাঃ
কাউকে ভুলেও, মজা করেও ফেইসবুকে থ্রেট দেওয়া যাবে না। আবার গালিগালাজ করা থেকে ও বিরত থাকতে হবে। নাহলে কেউ যদি রিপোর্ট করে আইডির আশা ছেড়ে দিতে হবে।
২. শক্তিশালী পাশওয়ার্ড প্রয়োগঃ
কোন আইডির সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে মিশ্র ধরনের পাশওয়ার্ড এর দিকে নজর দিতে হবে। মানুষ সবসময় যে কমন ভুলটা করে তা হল নিজের ডিটেলস দিয়ে পাশওয়ার্ড দেয়, কিন্তু তা মোটেও নিরাপদ না। যেমনঃ নিজের নাম, পরিবারের কারো নাম, জন্ম তারিখ কিংবা মোবাইল নাম্বার এ ধরনের তথ্যাদি। মনে রাখবেন পাশওয়ার্ড দিতে গেলে বড় হাতের এবং ছোট হাতের অক্ষর যেকোন অংক, স্পেস ইত্যাদি ব্যবহার করবেন। আর স্পেশাল চিহ্ন ও রাখতে পারেন। যথাঃ *, %, # ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করুন। পাসওয়ার্ডের মোট অক্ষর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কমপক্ষে ৬ সংখ্যার পাশ দিতে হলেও চেষ্টা করুন যাতে মিনিমাম ১০-১৫ অংক বিশিষ্ট হয়। আর পাসওয়ার্ডকে যাতে ভুলে না যান সেজন্য অন্য কোথাও সংরক্ষন করুন।
৩. নিয়মিতভাবে পাশওয়ার্ড পরিবর্তনঃ
নিয়মিত ভাবে নতুন পাসওয়ার্ড দিন, দেখবেন তাতে পাশ ফাস হলেও ভয়ের কিছু থাকবেনা। আর পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে Forgot Password নামক অপশনটিতো অপেক্ষা করছেই আপনাকে হারানো পাশ ফিরে পেতে।
৪. ব্যাক্তিগত তথ্য সম্বন্দে সাবধানতাঃ
প্রোফাইলে এমন কোন তথ্য দিবেন না যাতে দুষ্টচক্র এর হাতে আপনার তথ্য পাচার হয়ে যায়, আর সেই তথ্য থেকেই আপনার পাশওয়ার্ড ব্রেক হয়ে যায়। এক্ষেত্রে নিরাপদ হল সেইসব তথ্য কাউকে না দেওয়া। এবেপারটা ব্যবহার করে আমি নিজে ৬ টা আইডি চেষ্টা করে ১০০% সফল হয়েছি। সো ডন্ট ডু দ্যাট, অবশ্য আমি তাদের দূর্বলতা চেক করার উদ্দেশ্যেই সেটা করেছি।
৫. অপরিচিত/ফেক একাউন্টকে বন্ধু বানাবেন নাঃ
একটা অপরিচিত ব্যাক্তিকে কখনোই রিকোয়েষ্ট বা এক্সেপ্ট করা উচিত নয়, কারন এটা আপনার জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাড়াতে পারে। তাই ছবিহীন প্রোফাইল বা প্রয়োজনীয় ইনফো ছাড়া কাউকে এড করা কোন ভাবেই উচিত নয়।
৬. লিঙ্ক ক্লিকে সতর্কতাঃ
ধরুন আপনাকে কেউ একজন একটা লিঙ্ক দিল, কিন্তু আপনাকে সেই লিঙ্কে ক্লিক করার আগে বেশ কয়েকবার চিন্তা করা উচিত। যেমন এমন হল এটা পিশিং লিঙ্ক, বা কুকি ষ্টিলিং স্ক্রিপ্ট বা বিপদ জনক কিছু, যা আপনার যেকোন প্রাইভেসি ভাংতে পারে।
৭. ইমেইল সূরক্ষা ও এর সতর্ক ব্যবহারঃ
ইদানিং সবচেয়ে বেশি হ্যাক হয় ইমেইল এর মাধ্যমে, তাই ইমেইল এড্রেসের কোন লিঙ্কে যদি ব্যাক্তিগত তথ্য চায়, তাহলে ভুলেও সেই খানে কিছু দিবেননা, আর ফেইসবুকের হ্যাক কিন্তু ইমেইল দিয়েই করা যায়, তাই আপনার ইমেইল এড্রেসের পাশওয়ার্ডও অনেক ষ্ট্রং করবেন, নাহলেতো বুঝতেই পারছেন।
আর সবসময় খেয়াল রাখবেন www.facebook.com এর লিঙ্ক ছাড়া আর বাকি সব লিঙ্ক ফেইক যেমন www.faceb00k.com। কি দেখতে একই মনে হচ্ছে তাইনা, কিন্তু বিপদ এখানেই
কাজেই কখনো এই ধরনের মেইলে ক্লিক করবেন না। কারন এগুলো ফিশিং সাইট, যা ফেইক অর্থাৎ ভুয়া।
এই কয়েকটা পয়েন্ট কাজে লাগিয়ে আশাকরি আপনি বেশ শক্ত একটা অবস্থানে যেতে পারবেন, আপনার আইডিকে ৬০% সেফার বলতে পারবেন।

ফেসবুক চ্যাট থেকে অনলাইন স্ট্যাটাস হাইড করার নিয়ম

ফেসবুক সম্প্রতি নতুন একটা ফিচার চালু করেছে যার মাধ্যমে আপনি আপনার অনলাইন স্ট্যাটাস হাইড করতে পারবেন। আগে অনলাইন স্ট্যাটাস হাইড করতে চ্যাট অপশনটি সম্পূর্ণ বন্ধ করা লাগতো কিন্তু বর্তমানে আপনি আপনার সুবিধামতো যে কারো জন্য নিজের অনলাইন স্ট্যাটাস হাইড করতে পারবেন।
১। প্রথমে settings এ গিয়ে advance settings এ ক্লিক করুন।
২। advance settings এ আপনি দুটা অপশন পাবেন Turn on chat for all friends এবং turn on chat from selected friends।
৩। আপনি আপনার পছন্দ মতো অপশন বাছাই করে save বাটন ক্লিক করুন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট প্রাইভেসির খুঁটিনাটি

ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রাইভেসি অপশন রয়েছে। ফেসবুক ব্যবহারকারী তার প্রয়োজনে এসব প্রাইভেসি যুক্ত করতে পারেন বা কাস্টম প্রাইভেসি যুক্ত করতে পারেন। ফেসবুকের অ্যাকাউন্টে প্রাইভেসি সেট করার জন্য ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগইন করুন। এখানে উপরের ডান পাশে অবস্থিত Account>Privacy Settings-এ ক্লিক করুন। এখানে Sharing on Facebook>Recommended-এ দেখুন Customize Settings নামে একটি অপশন রয়েছে, এখানে ক্লিক করুন। কাস্টোমাইজ সেটিংস থেকে বিভিন্ন অপশনের জন্য প্রাইভেসি সেট করে দিতে পারেন। যেমন- Post by me, Family, Relationships, Interested in, Bio and Favorite quotations, website, Religious and political views, Birthday, Place you check in to, Photos and videos you’re tagged in, Permission to comment on your posts, Suggest photos of me to friends, Friend can post on my Wall, Can see Wall posts by friends, Address, IM Screen name ইত্যাদি অপশনে প্রাইভেসি সেট করে দিতে পারেন। প্রাইভেসি সেট করার ক্ষেত্রে চার ধরনের অপশন দেখতে পাবেন। যথা- Everyone, Friends of Friends, Friend Only, Customize।

কীভাবে FACEBOOK THEMES পরিবর্তন করবেন

আমরা সবাই ফেসবুক ব্যাবহার করি অনেক আগে থেকেই, কিন্তু আমরা কইজন ফেসবুক থিমস পরিবর্তন করেছি…, এইটা খুবই সহজ আপনার থেকে প্রথমে একটা GOOGLE CHROME EXTENSION এড করতে হবেঃ Stylish (ডাউনলোড লিংকঃ এখানে কিল্ক করুণ ) , তারপর আরেকটা আই ওয়েবসাইটঃ userstyles (ডাউনলোড লিংকঃ https://userstyles.org/styles/browse/facebook) এ গিয়ে আপনার ইচ্ছা মত থিমস ইন্সটল করুন।

ফেসবুকে যা পড়ছেন তা বন্ধুদের ওয়ালে অটো পোস্ট বন্ধ করুন

আপনি যদি ফেসবুকের সোশ্যাল রিডিং অ্যাপস দিয়ে কোনো আর্টিকেল পড়ে থাকেন সেটা আপনার বন্ধুর ওয়ালেও চলে যায়। এটা অনেক সময় বিরক্তিকর হয়ে দাঁড়ায়। এটা বন্ধ করতে চাইলে-

১। উপরে হোম বাটনের পাশে Account Settings এ ক্লিক করুন।

২। এবার Apps ট্যাবে গিয়ে যে অ্যাপসের শেয়ার বন্ধুদের ওয়ালে বন্ধ করতে চান তার পাশে Edit বাটনে ক্লিক করুন।

৩। ফলে Posts on your behalf – Who can see posts this app makes for you on your Facebook timeline?’’ দেখাচ্ছে। এখন ড্রপ ডাউন মেনু থেকে ঙহষু গব সিলেক্ট করুন।

ব্যাস হয়ে গেল। এখন আপনি যা পড়ছেন তা আপনার বন্ধুদের ওয়ালে পোস্ট হবে না। এভাবে আপনি অন্য অ্যাপগুলো কনফিগার করতে পারবেন।

নির্দিষ্ট বন্ধুদের ফ্রেন্ড বক্সে প্রর্দশিত করা

আপনার ফেসবুক প্রোফাইল যারা দেখবে তারা আপনার ফ্রেন্ড বক্সে কতগুলো বন্ধু দেখবে বা কাদের কাদের দেখবে তা আপনি নির্ধারণ করে দিতে পারেন। ডিফল্ট হিসাবে ৬জন বন্ধু বিক্ষিপ্তভাবে প্রদশিত হয়। এটা নির্ধারণ করতে আপনার ছবি উপরে ক্লিক করে প্রোফাইলে যান। এবার বাম পাশের Friends এর ডানের পেনসিলে ক্লিক করুন। Show এর ড্রপডাউন থেকে কতগুলো বন্ধুকে দেখাতে চান তা নির্ধারণ করুন। এবার Always show these friends: এর নিচে আপনার বন্ধুদের নাম যোগ করুন। ব্যাস এখন থেকে আপনার নির্ধারিত বন্ধুদের ফ্রেন্ড বক্সে সবসময়ে দেখাবে। নির্ধারিত করা বন্ধুদের সংখ্যা কম হলে বাকীগুলো অনান্য বন্ধুদের মধ্য থেকে বিক্ষিপ্তভাবে প্রদশিত হবে।

আপনার ফেসবুক চ্যাট বক্স কে সাজিয়ে নিন

এইটা একটা GOOGLE CHROME EXTENSION দিয়ে করতে হবা যার নাম Pretty Facebook Chat।

ডাউনলোড করুন এই লিংক থেকেঃhttps://chrome.google.com/webstore/detail/pretty-facebook-chat/ihamlfilbdodiokndlfmmlpjlnopaobi/

Facebook, Google, Yahoo,এবং Windows Live একাউন্ট মুছে ফেলুন

আমরা সবাই্ Facebook, Google, Yahoo, বা Windows Live ব্যবহার করি। কিন্তু এখন মনে করেন আপনি আর এই একাউন্টটি ব্যবহার করবেন না ও চাচ্ছেন যাতে এই একাউন্টটি মুছে ফেলতে। কী উপায়? কোন সমস্যাই নাই।
FaceBook একাউন্ট কিছু সময়ের জন্য বা স্থায়ীভাবে বাদ দেয়া

এখন আমরা আমাদের ফেইসবুক একাউন্টটি বাদ বা মুছে দেব। এজন্য Account > Account Settings এ যান ও এখানে থেকে Security ট্যাবে ক্লিক করুন। এবার নিচের দিকের Deactivate your account এ ক্লিক করুন। তাহলে আরেকটি পাতা আসবে। এখানে আপনাকে একটা কারণ দেখাতে হবে। কেন আপনি ফেইসবুক একাউন্টটি ডিলেট করে দিবেন।
এবার এখানে থেকে আপনি আপনার ইচ্ছা মত অপশন নির্বাচন করুন ও Confirm বাটনে ক্লিক করুন। তাহলেই আপনার ফেইসবুক বন্ধ হয়ে যাবে।
Google/Gmail account মুছে ফেলা

প্রথমে Google Accounts page এখানে গিয়ে লগইন করুন। এবার নতুন পাতাটির নিচের দিকে যান। Services >>> Close account and delete all services and info associated with it এ ক্লিক করুন। তাহলে নিচের মতো একটি ছবি আসবে।
এবার এখানে আপনার পাসওয়ার্ডটি দিয়ে Delete Google Account এ ক্লিক করুন। তাহলে কেল্লা ফতে!!!!!!!
Yahoo account মুছে ফেলা

ইয়াহু একাউন্ট মুছে ফেলতে প্রখমে Terminating your Yahoo Account page এখানে যান। এবার আপনার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সাই্ন ইন করুন। এবার এটি আপনাদের মুছে ফেলবেন কিনা তা জানতে চাইবে, আপনি জানিয়ে দেন আপনি মুছে ফেলবেন। তাহলেই মুছে যাবে।
Windows Live account মুছে ফেলা

এবার আমরা আমাদের লাইভ মেইল একাউন্টটি মুছে ফেলব। এজন্য প্রথমে আপনার একাউন্টটি লগইন করুন। এবার ইউজার নেমের পাশের এ্যারো চিহ্নটিতে ক্লিক করে Account নির্বাচন করুন। তাহলে Account Overview পেজ আসবে। এবার Other Options এর নিচের “Close your account” এ ক্লিক করুন। “Close your Windows Live account” পাতাটি খুলবে। এখানে মাইক্রোসফ আপনার কিছু পার্সোনাল কিছু তথ্য চাইবে, তথ্যগুলো দিতে একই একাউন্ট আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন করুন।
এবার Yes করুন, তাহলে আপনার একাউন্টটি মুছে যাবে।

ফেসবুকে ফ্রেন্ডলিস্ট লুকানোর উপায়

ফেসবুকে ইচ্ছে করলেই অনেক কিছু করা যায়। যেমন- আপনার ফ্রেন্ডলিস্ট লুকাতে এবং তা আবার দেখাতেও পারবেন। সাধারণত ফ্রেন্ডলিস্ট দেখানো থাকে। ইচ্ছে করলে আপনার ফ্রেন্ডলিস্ট সহজেই লুকাতে পারবেন।

এর জন্য Accounts>Privacy Settings-এ ক্লিক করুন। এখানে দেখুন Choose your privacy Settings-এর নিচে Connecting on Facebook নামে একটি অপশন রয়েছে। এখানে View Settings এর লিঙ্কে ক্লিক করুন। এখানে বেশ কিছু অপশন রয়েছে। এর মধ্যে See your friend list-এর ডান পাশে থাকা বাটনে ক্লিক করুন। এখানে Custom সিলেক্ট করুন। কাস্টম অংশ থেকে Only Me সিলেক্ট করে দিন। এর ফলে আপনি ছাড়া আপনার ফ্রেন্ড বা অন্য কেউ আপনার ফ্রেন্ডলিস্ট দেখতে পাবে না।

কাস্টম সেটিংস সম্পর্কে ধারণা

প্রাইভেসি সেটিংস থেকে কাস্টম সেটিংসে ক্লিক করলে একটি উইন্ডো প্রদর্শিত হবে। এখানে Make this visible to-এর These People অংশ থেকে চারটি অপশনের যেকোনো একটি অপশন সিলেক্ট করে দিতে হবে : Friends of Friends, Friends Only, Specific People, Only Me।

স্পেসিফিক কোনো ইউজারের জন্য কাস্টম সেটিংসটির প্রয়োজন হয়ে থাকলে কাস্টম প্রাইভেসি উইন্ডোর Hide this from-এর These people-এর ঘরে উল্লিখিত ব্যক্তি বা ইউজারের নাম সেট করে দিতে পারেন। এতে সবার জন্য সব উন্মুক্ত থাকলেও উক্ত ব্যক্তির জন্য তা হিডেন থাকবে।

এখানে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য প্রয়োজনীয় বেশ কিছু বিষয় তুলে ধরা হলো। পরে ফেসবুকের ওপর আরো বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

সহজেই জানুন কে বা কারা আপনাকে আনফ্রেন্ড করল

ফেসবুকে অ্যাড ফ্রেন্ড করলে নোটিফিকেশন আসলেও আনফ্রেন্ড করলে নোটিফিকেশন পাওয়ার কোন সুযোগ নেই। তবে, Social Fixer (http://socialfixer.com/ )নামক ফেসবুক এক্সটেনশন ব্রাউজারে ইন্সটল থাকলে আনফ্রেন্ড এর নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে মুহূর্তেই। নোটিফিকেশন ছাড়াও এর এক্সট্রা কিছু ফিচার সহজেই আপনার মন কাড়বে, ব্যবহার করেই দেখুন!

ফেসবুকের Pending Friend Request দেখা

আপনি যাদের কাছে friend request পাঠিয়েছেন কিন্তু তারা গ্রহণও করেনি রিজেক্টও করেনি সেই রিকোয়েস্টগুলো পেন্ডিং আকারে থাকে। ফেসবুকে কাকে কাকে Add request করেছেন তা আগের সেটিংসে দেখা গেলেও বর্তমানের সেটিং তা শো করেনা। তবে চাইলে ফেসবুকের একটি ছোট অ্যাপ্লিকেশনের সাহায্যে Pending friend request গুলো বের করা যায় খুব সহজেই। এজন্য, জাস্ট শুধু এখানে http://apps.facebook.com/friendrequests/ গিয়ে Allow করলেই দেখতে পারবেন আপনার Pending friend request গুলো।

ফেসবুকের ভিডিও ডাউনলোড

ফেসবুকে অনেকেই ভিডিও প্রকাশ করেন যেগুলো সরাসরি ফেসবুকে দেখা গেলেও ডাউনলোড এর কোন সুযোগ থাকেনা। ফেসবুকের ভিডিও ডাউনলোড করতে চাইলেঃ

১। প্রথমে যে ভিডিওটি ডাউনলোড করতে চান তার উপর রাইট ক্লিক করে Copy link address ক্লিক করুন।

২। এবার এই ঠিকানায় ( http://facebookvideodown.com/ ) যান।

৩। Enter the video link এ আপনার কপি করা লিঙ্কটি পেস্ট করে দিয়ে Download এ ক্লিক করুন।

হ্যাপী ডাউনলোডিং!

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট লগ আউট করতে ভুলে গেলে

ফেসবুকের অনেক কিছু জানা সত্ত্বেও আকস্মিক বিড়ম্বনার মধ্যে পড়ে যেতে হয়। কোন পাবলিক কম্পিউটারে বা অন্য কারও কম্পিউটারে ফেসবুক লগইন করেছেন কিন্তু আসার সময় বিদ্যুৎ চলে গেছে বা আপনি লগ আউট করতে ভুলে গেছেন। এখন তো অনেক বড় বিপদে পড়ার মত সমস্যা। যদি এমন হয় তবে এবার ঐ কম্পিউটারে ছুটে যাবার দরকার নেই। আপনি আপনার কম্পিউটার থেকেই ঐ কম্পিউটার এর ফেসবুক লগ আউট করতে পারবেন। এজন্য যা করতে হবে-

১। প্রথমে আপানার PC থেকে ফেসবুক এ লগইন করুন।

২। এবার Account Setting এ যান।

৩। তারপর Security অপশনে Active Sessions এ ক্লিক করুন

৪। এখন Current Session এ আপনার চলতি PC এর তথ্য দেখাবে আর Also Active এ শিরোনামে লগইন সক্রিয় আছে এমন কম্পিউটারের সময়, ডিভাইসের নাম, কোন শহর, আইপি কত, কোন ব্রাউজার, কোন অপারেটিং সিস্টেম তা দেখাবে।

৫। এবার ঐ আগের কম্পিউটার লগ আউট করতে End Activity ক্লিক করুন তাহলেই Computer থেকে লগ আউট হয়ে যাবে।

এক পেজ এ অন্য পেজ এর text লিংক দিতে

আজকের এই পোষ্ট তাদের জন্য যারা ফেসবুকএ ফ্যানপেজ চালায় এবং যারা একধিক ফ্যান পেজ চালাতে চায় এবং একপেজে অন্য পেজএর লিংক দিতে চায়, যেখানে ulr দেখা যাবেনা শুধু বিস্তারিত, আরোজানতে এ ধরনের ক্লিক লিংক দেখাযাবে। শুরুতেই বলেনেই একটু বড় পোষ্ট বিস্তারিত লেখা আছে এজন্য, কষ্ট করে পড়লে আপনিও পারবেন আপনার পেজ এ অন্যপেজ এর text লিংক দিতে।
লিংক তৈরী করতে নিচের পদ্ধতি অনুসরন করুনঃ-
প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজে প্রবেশ করুন, এখানেন লক্ষ করবেন…
Timeline
About
Photos
Likes
More
নামে কিছু অপশন আছে…….
এরপর About এ যান, এরপর একবারে নিচে দেখুন

Facebook Page ID নামে এটা অপশন আছে পশে ১৭ সংখ্যা বিশিষ্ট একটা কোড আছে
এবার কোডটি কপি অথবা লিখে নিন…

এবার নিচের কোডটি টাইপ করুন এবং আইডি এর জায়গায় যে আইডি এর আগে সংগ্রহ করেছেন তা দিন এবং পোষ্ট করুন। কাজ শেষ দেখেন নীল রং এর ক্লিক লিংক তৈরী হয়েছে।
@@[0:[আইডি:1: Your Text Here]]
আমার পেজ এ দেয়া ক্লিক লিংক সহ পোষ্ট এর উদাহরন নিচে দিলাম প্রথমে প্রয়োজনে কপি করে পরে এডিট করে নিতে পারেন……
@[239453449546013:]

উদাহরন:
@@[0:[239453449546013:1:এখানে কিছু লিখলেন]] ফেসবুকে ক্লিক লিংক তৈরী একপেজ এর text লিংক অন্যপেজে দেওয়ার নিয়ম দেখে নিন@@[0:[2394534495460:1: এখানে]] এখানে…
এখানে যা ইচ্ছা লিখলেন
লিংক @[239453449546013:]
আশা করি বুঝতে পেরেছেন, কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন.. আর ভাল লাগলে শেয়ার করে বন্ধুদের জানিয়ে দিন….

ফেসবুক লাইভ ভিডিও স্ট্রিমিং করবেন যেভাবে

1.ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশন এ, আপনি যেভাবে একটি স্ট্যাটাস আপডেট করবেন তেমনিভাবেই ভিডিও আপলোড করবেন।
2.কিবোর্ড এর উপরে আপনি নতুন একটি আইকন পাবেন।
3.আপনি যদি সম্প্রতি কোন স্ট্যাটাস না দিয়ে থাকেন তবে আপনি ভাসমানভাবে একটি নটিফিকেশন দেখবেন চেক ইন আইকনের ওপরে।
4.আপনি যদি লাইভ ভিডিও ধারণ এবং সম্প্রচারের জন্য প্রস্তুত থাকেন তাহলে আইকনটি সিলেক্ট করুন।
5.আপনি নীল রঙের ‘কন্টিনিউ’ বাটন টিতে টাচ করবেন, আপনাকে আপনার ব্রডকাস্ট সম্পর্কে বর্ণনা করার জন্য জিজ্ঞেস করবে। একই স্ক্রিনে আপনি আপনার ভিডিওর প্রাইভেসি নির্ধারণ করতে পারবেন।
6.যখন থেকে আপনি লাইভে যাবেন, তখন থেকেই ভিডিও ফিড আপনার টাইমলাইনে দেখা যাবে। ব্রডকাষ্ট স্ক্রিনে আপনি দেখতে পাবেন কতজন দর্শনার্থী ভিডিওটি দেখছে, আপনি কতক্ষণ রেকর্ডিং করছেন এবং এমনকি লাইভ কমেন্টও।

ভিডিও স্ট্রিমিং এর নটিফিকেশন সবার কাছে যাবে না। তাই সবার কাছে নটিফিকেশন পাঠানোর জন্য আপনি আগেই একটি স্ট্যাটাস দিয়ে রাখতে পারেন। লাইভ ভিডিও স্ট্রিমিং শেষ হওয়ার পর ভিডিওটি আপনার টাইমলাইনে ভিডিও হিসেবে প্রদর্শন করবে। চাইলেই যে কেউ পরে ভিডিওটি দেখে নিতে পারবে এবং আপনার ভিডিওর দর্শনার্থী বাড়বে।

কিভাবে অপ্রয়োজনীয় ফেসবুক অ্যাপ রিমুভ করবেন

বর্তমান সময়ে আমরা যারা অন্তত ইন্টারনেট এর দুনিয়ায় ঘুড়ে-বেড়াই তাদের সকলের ন্যূনতম একটি ফেসবুক একাউন্ট আছেই। অনেকেরতো আবার কয়েকটিও থাকে। যাক, ওসব কথায় গিয়ে আপনাদের সময় নষ্ট করতে চাচ্ছি না। আমরা অনেকেই প্রায় সময় বিভিন্ন অ্যাপস্‌ ব্যবহার করি কিন্তু সেগুলো কিভাবে আবার রিমুভ করতে হয় তা আমরা জানি না। আজকের এই বিষয়ে আপনাদের অবগত করার জন্যেই আমার এই ছোট্ট প্রয়াস। তাহলে আসুন দেখে নেই, কিভাবে অপ্রয়োজনীয় ফেবু (ফেসবুক) অ্যাপস্‌ রিমুভ করা যায়।
১) প্রথমে আপনার ফেবু (ফেসবুক) একাউন্ট এ প্রবেশ করুন। তারপর একটু উপরের ডান কোণায় লক্ষ্য করুন। দেখুনতো আপনার হোমপেজ বাটনের পাশেই দেখুন একটি স্টার (*) চিহ্ন রয়েছে। ওটিতে ক্লিক করে “Account settings” এ ক্লিক করুন। (ছবির মত)

২) এবার বাম দিকে একটু নিচে দেখুন। কি “Apps” অপশন দেখতে পাচ্ছেন কি? যদি দেখেই থাকেন তাহলে এবার ওখানে ক্লিকান। এরপর ডান দিকে আপনার ব্যবহৃত সকল অ্যাপস্‌ এর লিস্ট দেখতে পাবেন।

৩) প্রতিটি অ্যাপস্‌ এর ডান পাশেই একটি ক্রস (x) চিহ্ন দেখতে পাবেন। যেটি রিমুভ করতে চান সেটির উপর ক্রস বাটন প্রেস করুন। ছবির মত স্ক্রীণ দেখতে পাবেন। বক্সটিতে টিক চিহ্ন দিন এবং “Remove” বাটনে প্রেস করুন। ব্যস।

হয়ে গেল আপনার অপ্রয়োজনীয় ফেবু অ্যাপস্‌ রিমুভ। এভাবে অপ্রয়োজনীয়গুলো রিমুভ করে দিন।

হোয়াটসঅ্যাপের তথ্য ফেসবুকে ঠেকানোর উপায় জেনে নিন

নিজেদের ‘প্রাইভেসি পলিসি’তে বড়সড় রদবদল এনে ফেসবুককে তথ্য পাঠানোর কথা জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। অর্থাৎ আপনার হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর থেকে ‘চ্যাট হিস্ট্রি’র সব তথ্য থাকবে ফেসবুকের কাছেও। এ ব্যাপারে ফেসবুকের ভাষ্য, ব্যক্তিগত তথ্য বিশ্লেষণ করে ইউজারদের আগ্রহ অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখাবে তারা। এর পেছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই। ২০১৪ সালে হোয়াটসঅ্যাপ অধিগ্রহণের সময় ফেসবুক যদিও জানিয়েছিল, হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক থাকবে না। দু’টি আলাদা সংস্থা হিসেবে কাজ করবে ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ। তার পর মাস কয়েক আগেই এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন প্রযুক্তি চালু করে হোয়াটসঅ্যাপ। যার ফলে আপনি কোনো মেসেজ পাঠালে মাঝ রাস্তায় হ্যাক করে পড়ে ফেলতে পারবে না কেউ-ই। যার উদ্দেশ্যে মেসেজ পাঠাচ্ছেন পড়তে পারবেন শুধু সেই ব্যক্তি। কিন্তু এবার হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের সঙ্গে তথ্য শেয়ার করবে এই খবরে আতঙ্কিত অনেকেই। অনেকেরই ধারণা, হোয়াটসঅ্যাপের চ্যাট বুঝি এবার দেখা যাবে ফেসবুক মেসেনজারেও। না, তেমন কিছু হচ্ছে না। তবে আপনি যদি ফেসবুককে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের তথ্য জানাতে না চান তার ব্যবস্থাও রয়েছে। নিচে সেই নির্দেশনাই রইল-

অ্যান্ডরয়েড ফোনের জন্য:
১. হোয়াটসঅ্যাপের একেবারে ডান দিকে ওপরে ‘থ্রিড ডট মেনু’তে ট্যাপ করুন।
২. একটা ড্রপডাউন মেনু খুলবে, এবার সেটিংসে ট্যাপ করুন।
৩. ‘শেয়ার মাই অ্যাকাউন্ট ইনফো’ লেখার পাশে যে চেকবক্সটি রয়েছে সেটি আনচেক করে দিন।

আইফোনের জন্য:
১. সেটিংসে ট্যাপ করুন।
২. ‘শেয়ার মাই অ্যাকাউন্ট ইনফো’ অনচেক করুন।

মনে রাখবেন, একবার শেয়ারিং বন্ধ করলে কিন্তু আর চালু করা যাবে না।

ফেসবুক টাইমলাইনঃ তৈরি করুন নিজের হট ডিজাইনের কভার ফটো

১। myFBCover

শুধুমাত্র সুন্দর ডিজাইনের কভার ফটো তৈরির জন্যই নয়, নিজের তৈরি কভার সকল myFBCover মেম্বারদের সাথে শেয়ারের জন্য এটি একটি আকর্ষণীয় সাইট। আপনি সপ্তাহে ৫০ ডলার ও মাসে ১০০ ডলারের ক্যাশ প্রাইজের যোগ্য হবেন যদি আপনার তৈরি কভারখানা most downloads এর সারিতে স্থান পায়। প্রায় ১০০০ ডিজাইনের কিউট কভার থেকে আপনি কোন ধরনের কালার ও ডিজাইন বেশি ডাউনলোড হয় তাও আইডিয়া নিতে পারবেন। আপনি আপনার কভার ফটো ক্রপ করতে পারবেন, রিসাইজ করতে পারবেন, এমনকি ইফেক্টও দিতে পারবেন নিমেষেই। সুতরাং আর দেরি কেন? এখনই ভিজিট করুন নিচের সাইটেঃ
এখানে ক্লিক করুন

আথবা href=”http://www.myfbcovers.com/

২। TheSiteCanvas

হট ডিজাইনের ফেসবুক কভার তৈরির আরেক কিংবদন্তী হচ্ছে TheSiteCanvas. এটি সহজেই আপনার পছন্দের সারিতে স্থান পাবে; কারন এটি দিয়ে আপনি আপনার ফেসবুক নামটিকে সুন্দর ডিজাইনের একটি মুভি লাইক টাইটেল তৈরি করতে পারবেন। আপনি আপনার ফেসবুক নামের সঙ্গে মানানসই যেকোনো ডিজাইন সিলেক্ট করতে পারবেন এবং কভারটিকে ইউনিক ডিজাইন ও প্যাটার্ন দিতে ওর মধ্যে আপনার নিজের কাস্টম ফটোও যোগ করতে পারবেন। উপরের ছবির কভারটি এই সাইটের মাধ্যমেই করা হয়েছে। সুতরাং এখনই ভিজিট করুন নিচের সাইটেঃ
এখানে ক্লিক করুন

অথবা http://thesitecanvas.com/

৩। Facebook Profile Covers

অন্যগুলোর মত Facebook Profile Covers-ও আপনাকে প্রায় ১০০০ ডিজাইনের হট ও কুল কভার থেকে আপনারটি বেছে নিতে সাহায্য করবে। এটি অনেকটা myFBCovers এর মতই; তবে এখানে আপনি কোন প্রতিযোগিতার সুযোগ পাবেন না। এখানে আপনি কেবল আপনার কভার তৈরি ও ডাউনলোডই করতে পারবেন। সুন্দর কালার, ভেরিয়েশন ও ওয়াটারমার্ক সাইটটিকে অন্যদের থেকে অনেকটা আলাদাই করেছে। এখনই ভিজিট করুন নিচের সাইটেঃ
এখানে ক্লিক করুন

অথবা http://fbprofilecovers.com/

ডেস্কটপ থেকেই চ্যাট করুন ফেসবুক ফ্রেন্ডদের সাথে

কখনো কি ভেবে দেখেছেন কোন ওয়েবপেজ না খুলেই ডেস্কটপ থেকেই ফেসবুক ফ্রেন্ডদের সাথে চ্যাট করা সম্ভব? অনেকে হয়ত ব্যবহারও করছেন। যারা জানেন না তাদেরকে বলছি, Digsby বা ChitChat এর মত ডেস্কটপ বেইজড এপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করে ব্রাউজারে কোন ওয়েবপেইজ না খুলেই গুগল টক বা ইয়াহু মেসেঞ্জার এর মত করে ফেসবুক ফ্রেন্ডদের সাথে চ্যাট করা যায় সহজেই। আর এগুলোর ব্যবহার খুবই সহজ, চ্যাটিং এ কখনোই বোর ফিল হবেন না।

নীল ও উল্টা করে প্রদর্শন করুন আপনার ফেসবুক স্ট্যাটাস

ফেইসবুক এ আপনি কোন স্ট্যাটাস দিলেন এবং তা যদি হয় নীল রঙের তাহলে নিশ্চয় সবাই চমকে যাবে এর জন্য বিশেষ কিছু করতে হবে না শুধু :

১। ফেসবুকে নীল ও লিঙ্কযুক্ত স্ট্যাটাস দিতে হলে নোটপ্যাডে @[1: ]@@[1:[0:1: Your Text Here]] কোডটি কপি করে “Your Text Here” অংশে আপনার স্ট্যাটাসটি এডিট করে পুরো কোডটুকু ফেসবুকের What’s on your mind অংশে পেস্ট করুন।

২। ফেসবুক স্ট্যাটাস উল্টা করে দিতে হলে এই লিঙ্ক এঃ http://www.fliptext.org/ গিয়ে প্রথম বক্সে স্ট্যাটাসটি লিখে নিচের বক্স থেকে উল্টা টেক্সটটি কপি করে ফেসবুকের What’s on your mind অংশে পেস্ট করুন।

অটোম্যাটিক্যালি পোক ব্যাক

পোক করা ফ্রেন্ডদের পোক করুন অটোম্যাটিক্যালি

ফেসবুকে পোক নিঃসন্দেহে একটি দারুণ ফিচার। ফেসবুক ফ্রেন্ডদের পোক ব্যাক করার মত যাদের পর্যাপ্ত সময় নেই তাদের জন্য Facebook Autopoke নামে একটি গ্রিজ মাঙ্কি স্ক্রিপ্ট খুব সহায়ক হবে। স্ক্রিপ্টটি পাবেন এই লিঙ্ক এঃএখানে ক্লিক করুন

অথবা http://userscripts.org/scripts/show/5200

সার্চলিস্টে নিজেকে লুকিয়ে রাখতে চান

অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী রয়েছেন যারা নিজেদেরকে শুধু ফ্রেন্ড ও পরিচিত জনের সাথে যুক্ত করতে চান। সেই সাথে চান অন্য কেউ যেনো তাদের খুঁজে না পায় সে ব্যবস্থা রাখতে। এই ধরনের প্রাইভেসি সেট করার জন্য Accounts>Privacy Settings-এ ক্লিক করুন। এখানে Choose your privacy Settings-এর নিচে Connecting on Facebook নামে একটি অপশন রয়েছে। এখানে View Settings-এর লিঙ্কে ক্লিক করুন। এখানে দেখুন Search for you on Facebook নামে একটি অপশন রয়েছে। এখানে ডান পাশের অপশন থেকে Friends Onlyতে ক্লিক করুন। অনেক ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের ঝামেলার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বিভিন্ন ফেসবুক ব্যবহারকারী এই অপশনটি ব্যবহার করে থাকেন।

অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে

যে ৮টি কারণে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিয়ে সবাই মেতে থাকে। তবে ক’জনেই বা নিয়ম জানে। ফেসবুক অ্যাকাউন্টের উপরে অনেক বিধি-নিষেধও আছে, যা না মানলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে আপনার ফেসবুক।

জেনে নিন, কোন কোন কারণে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হতে পারে—

১. আপনি স্ট্যাটাস কিংবা মেসেজে কোনো আক্রমণাত্মক ভাষা ব্যবহার করলে এবং কেউ রিপোর্ট করলে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হতে পারে।

২. আপনি প্রতিদিন একই মেসেজ বন্ধু-বান্ধবদের বারবার পোস্ট করলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। একই বার্তা বারবার দিতে চাইলে কনটেন্টে কিছু না কিছু বদল আনা দরকার।

৩. একদিনেই বেশি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠালে ফেসবুক সতর্ক করে। তারপরও পাঠাতে থাকলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হতে পারে।

৪. আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও আপলোড করার জন্য ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বাতিল হতে পারে।

৫. আপনার ফেসবুক ওয়ালে যদি আপনি একই পোস্ট বারবার করেন তবে সেটিকে স্প্যাম হিসেবে বিবেচনা করে সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যেতে পারে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট।

৬. আপনি যদি নিজের নামের পরিবর্তে সেলিব্রেটি বা অন্য কারোর নাম ব্যবহার করেন তাহলে অভিযোগ পাওয়ার ভিত্তিতে আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হতে পারে।

৭. ‘ফেক অ্যাকাউন্ট’ বা মিথ্যা তথ্য দিয়ে খোলা আইডি ফেসবুক সমর্থন করে না। শনাক্ত করতে পারলেই তা বন্ধ করে দেয়া হয়।

৮. আপনার প্রোফাইল শুধুই বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যবহার করা হলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে সেই অ্যাকাউন্ট।

ইমেইলে বিরক্তিকর ফেসবুক নোটিফিকেশন বন্ধ করবেন কিভাবে

ই-মেইলে ফেসবুকের অপ্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন বন্ধ করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন :

০১. প্রথমে আপনার ফেসবুকের অ্যাকাউন্টের আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন।

০২. Account-এ ক্লিক করে Account Settings-এ ক্লিক করুন।

০৩. বাম পাশের প্যানেলে দেখুন বেশ কিছু অপশন রয়েছে। এখানে Notifications ট্যাবে ক্লিক করুন। পেজ স্ক্রল করলে All Notification নামে একটি এরিয়া পাবেন।

০৪. অল নোটিফিকেশন থেকে Facebook-এর ডানপাশের Edit বাটনে ক্লিক করুন। এখানে বিভিন্ন ধরনের নোটিফিকেশনের নাম রয়েছে এবং তাদের ডান পাশে টিক চিহ্ন দেয়া আছে। নোটিফিকেশনের ধরন যেমন : Sends you a message, Adds you as a friend, Confirms a friend request, Confirms a friend request, Posts on your wall, Pokes you ইত্যাদি। এরূপ আরো বেশ কিছু নোটিফিকেশন অপশন রয়েছে এবং তাদের ডান পাশে টিক চিহ্ন দেয়া রয়েছে। ফলে এসব নোটিফিকেশন মেসেজ আপনার ই-মেইল অ্যাড্রেসে চলে যাবে। আপনি যেসব নোটিফিকেশন পছন্দ করেন না, তার ডান পাশ থেকে টিক চিহ্ন তুলে দিন। এভাবে আপনি ইচ্ছে করলে সব নোটিফিকেশনের টিক চিহ্ন তুলে দিতে পারেন।

স্ট্যাটাস শেয়ার করুন নির্দিষ্ট কোনো গ্রুপের সাথে

ফেসবুকের প্রাইভেসি সেটিংয়ে ডিফল্ট প্রাইভেসি যাদের সাথে দেয়া থাকে শুধু তাদের ওয়ালেই পৌঁছে যায় ইউজারের ফেসবুক স্ট্যাটাস। তবে চাইলে শুধু নির্দিষ্ট কিছু বন্ধু বা গ্রুপের সাথে শেয়ার করা সম্ভব এটি। নির্দিষ্ট কিছু বন্ধু বা গ্রুপের কাছ থেকে হাইড করে রাখাও সম্ভব এই ফেসবুক স্ট্যাটাস। এটি করার জন্য-

১। প্রোফাইলের What’s on your mind-এর ঠিক নিচে থাকা প্রাইভেসি আইকনে ক্লিক করে Custom-এ ক্লিক করুন।

২। নতুন পপ-আপ উইন্ডোর Make this visible to-এর These people or lists-এর অপশনটি কিংবা Hide this from-এর These people or lists-এর অপশনটি প্রয়োজনমতো সেট করুন।

৩। Make this visible-এর These people or lists-এর অপশনটি Specific people or lists করে দিয়ে নিচে যাকে যাকে ট্যাগ করে দেয়া হবে শুধু তাদের ওয়ালেই পৌঁছে যাবে উক্ত স্ট্যাটাসটি।

৪। একইভাবে Hide these from-এর These people or lists-এ যাদের যাদের ট্যাগ করে দেয়া হবে শুধু তাদের ছাড়া সবার ওয়ালেই পৌঁছে যাবে ওই স্ট্যাটাসটি।

আপনার ম্যাপে ছবি যোগ করুন

আপনার ছবিতে লোকেশন যোগ করতে পারেন যে কোথায় ছবিগুলো উঠিয়ে ছিলেন। এটা আপনার ম্যাপকে একটা ভিন্ন মাত্রা দেবে। এটা করতে Photos-এ ক্লিক করুন। আপনার কাভার পেজের নিচে ক্লিক করে দেখুন উপরে ডান পাশে add photos to map লেখা আছে। সেখানে ক্লিক করুন। এখন আপনি প্রতিটা ছবিতে জিয়োগ্রাফিকাল লোকেশন গুগল ম্যাপস থেকে যোগ করতে পারবেন।

যার সাথে চ্যাট করতে চান না তার কাছে অফলাইন হয়ে থাকা

আপনি কিছু বন্ধুর সাথে চ্যাট করতে চান না, শুধু তাদের কাছে নিজেকে অফলাইন রাখতে পারেন। এজন্য চ্যাট উইন্ডোতে যে বন্ধুর কাছে অফলাইন হবেন তারে নামের উপরে ক্লিক করুন। এবার চাকতির মতো সেটিং অপশন থেকে মড় offline to (আপনার বন্ধুর নাম) ক্লিক করলে এখন ওই বন্ধুর কাছে অফলাইন হয়ে যাবেন।

টাইমলাইনে ছবির পজিশন আবার ঠিক করুন

আপনি চাচ্ছেন আপনার প্রোফাইল সবসময় সুন্দর দেখাক। আর সে জন্য টাইমলাইনে ছবিগুলো যদি ঠিকভাবে ফোকাস না করে তাহলে তাকে ফোকাসে আনতে হবে। এজন্য আপনি ছবির রি-পজিশন করতে পারেন। খুবই সহজ, টাইমলাইনে ছবির উপরে ডান পাশে পেন্সিল আইকনে ক্লিক করলে reposition অপশন পাবেন। এবার ড্র্যাগ করে ছবির পজিশন আপনার মনের মতো করে নিন।

ফেসবুককে গুডবাই বলার পূর্বে যে ৪টি কাজ না করলেই নয়

প্রায় ৮ বছর হয়ে গেছে ফেসবুক প্রতিষ্ঠার। এরই মধ্যে ফেসবুক এর নীল ব্যানারের আওতায় প্রায় ৯০০ মিলিয়নেরও বেশি ইউজারকে আসক্ত করতে সক্ষম হয়েছে যা নিঃসন্দেহে ফেসবুকের একটি বড় অর্জন হিসেবে মন্তব্য করা যায়। তবে, ফেসবুকের ইদানিংকার কিছু পরিবর্তন এর কিছু ইউজারকে অন্য কিছু বিষয়ে ভাবতে বাধ্য করছে। অনেকে তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিয়ে গুগল প্লাসের দিকে ঝুকে পড়ছে। ইউজারের এমন আচরনের পেছনে শুধুমাত্র ফেসবুকের পরিবর্তনকেই দায়ী করা চলে না, বিশেষ কিছু কারন ইউজারকে এমনটি করতে বাধ্য করছে। যাহোক, আপনি যদি এরকম কেউ হন তাহলে স্বভাবতই ফেসবুককে বিদায় জানানোর পূর্বে আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো সংরক্ষণ করে নিতে চাইতে পারেন। ফেসবুককে গুডবাই জানানোর পূর্বে নিচের কাজগুলো এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়।

এক. আপনার পুরো প্রোফাইলটি ব্যাকআপ করে নিন

প্রোফাইল ব্যাকআপ করে নেয়া ফেসবুকের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণের সবচেয়ে ভাল পথ। আপনি সহজেই আপনার ফটো, স্ট্যাটাস, ওয়াল পোস্ট, কন্টাক্টসহ আপনার পুরো ফেসবুক প্রোফাইল ব্যাকআপ করে নিতে পারেন। এজন্য যা করতে হবেঃ

১। প্রথমে ফেসবুকে লগিন করে Account Settings এ যান।

২। বামপাশের General ট্যাব থেকে ডানপাশে সবার নিচে Download a Copy of Your Facebook Data নামে একটি অপশন পাবেন, ওখানে ক্লিক করলেই পুরো প্রোফাইল ডাউনলোড হওয়া শুরু হবে।

দুই. ফেসবুক কন্টাক্টগুলোকে Sync করে নিন

ফেসবুক কন্টাক্ট Sync করার জন্য Android ও iOS এর আছে পৃথক পৃথক আলাদা অ্যাপ্লিকেশন। iOS এর আছে Smart Sync আর Android এর আছে Address Book. এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো প্রথমে ফেসবুক ফ্রেন্ডদের কন্টাক্ট ইনফরমেশন যেমন ইমেইল ঠিকানা, ফোন নাম্বার, হোম অ্যাড্রেস ইত্যাদি তথ্য সংগ্রহ করে তারপর সেগুলো এর নিজস্ব মেমোরিতে সংরক্ষণ করে।

তিন. বন্ধুদের বার্থডেগুলো এক্সপোর্ট করে নিন

অন্যান্য সব তথ্য এর মত বন্ধুদের বার্থডেও নিঃসন্দেহে একটি গুরুত্বপূর্ণ অপশন। আপনি চাইলে সহজেই আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ডদের বার্থডেগুলো এক্সপোর্ট করে নিতে পারেন এভাবেঃ

১। ফেসবুকে লগিন করে Events পেজে যান।

২। ডানপাশে উপরে একটি ম্যাগ্নিফাই গ্লাস আইকন দেখতে পাবেন। ওখানে ক্লিক করলে নিচের মত কিছু অপশন পাবেন। Birthdays অপশন সিলেক্ট করে দিন।

৩। এবার পুনরায় ম্যাগ্নিফাই গ্লাস আইকনে ক্লিকায়ে দেখুন Export Birthdays অপশন দেখা যাচ্ছে।

চার. ব্যাকআপ করে নিন ছবিগুলোকে

ফেসবুকে আপলোড করা ছবি অন্য সাইটে সরাসরি ট্রান্সফার করার অনুমতি ফেসবুক দেয় না। তবে, গুগলের ফটো শেয়ারিং সাইট (পিকাসা) এ ফেসবুকের ছবি ট্রান্সফার করার ইনডাইরেক্ট একটি পথ আছে। এজন্য আপনাকে ব্যবহার করতে হবে গুগল ক্রম ব্রাউজার। গুগল ক্রমের Move Your Photos ( https://chrome.google.com/webstore/detail/idiebfmmkhaffedkhjhapmagabcadjhc ) এক্সটেনশনটির মাধ্যমে আপনি আপনার ফেসবুক ফটোগুলো পিকাসায় সরাসরি ট্রান্সফার করতে পারবেন।

ফেসবুক একাউন্টকে পারমানেন্টলি ডিলিট করা

এবার হঠাৎ করে আপনার দরকার হল ফেসবুক একাউন্টকে পারমানেন্টলি ডিলিট করে দিবেন। আপনি নিশ্চয়ই এবার সাধারন নিয়মে Account>Security পেজে নিচের Deactivate your Account এ যেয়ে Deactive করে দিবেন। হাহাহা…!!! বলে রাখি ফেসবুক একাউন্ট ডিলিট করা আর ডিএক্টিভ করা দুটি আলাদা বিষয়। আপনি যদি ডিএক্টিভ করে রাখেন সেটি আবার এক্টিভ করে নিতে পারবেন যে কোন সময়ে। কখনও মনের ভুলে লগ ইন করলেই ফেসবুক একাউন্ট টি আবার একটিভ হয়ে যাবে। কিন্তু ডিলিট করতে হলে এই https://www.facebook.com/help/delete_accountলিঙ্ক এ ভিজিট করে নির্দেশনা ফলো করুন। নতুন উইন্ডো তে আপনার পাসওয়ার্ড দিন। নিচের অংশে কেপচা ওয়ার্ড পুরন করে Okay ক্লিক করুন। এরপর যেই পেজ আসবে এখানে লেখা আছে তা ভালো করে লক্ষ্য করুন। আপনাকে আবারও সতর্ক করা হবে,আগামী ১৪ দিনের মধ্যে যদি লগ ইন করেন তবে আপনি এই ডিলিট একশন টা কেন্সেল করতে পারবেন। এছাড়া ১৪ দিন পরেই আপনার ফেসবুক একাউন্ট টি পারমানেন্টলি ডিলিট হয়ে যাবে। যা আর কখনও ফেরত পাবেন না।

আনফ্রেন্ড না করেই ফলো করা বন্ধ
কিভাবে একজন ফলোয়ারকে আনফ্রেন্ড না করেই ফলো করা বন্ধ করবেন

আমাদের অনেক ফ্রেন্ড আছে যাদের পোস্ট অনেক সময় আমাদের বিরক্তির কারণ হয়ে দারায়। তাদের হয়তো বলতেও পারছেন না যে তার পোস্ট গুলোতে আপনার বিরক্ত লাগছে সেই ক্ষেত্রে তাকে হয়তো আনফ্রেন্ড করার কথা ভাবছেন। তবে ফেসবুকের নতুন ফিচার আপনাকে এই সমস্যার হাত থেকে রক্ষা করবে।
এর জন্যে আপনাকে যা করতে হবে তা হলো আপনার সাই বন্ধুটির প্রোফাইলে যেয়ে following অপশনটি uncheck করতে হবে। এতেই আপনার কাজ হয়ে যাবে কারন আপনার সেই বন্ধুর বিরক্তিকর পোস্ট আর আপনার টাইমলাইনে আসবেনা।

আপনার নিউজ ফিড থেকে বিরক্তিকর জিনিসগুলো বাদ দিনঃ

আপনার হোম পেজে বন্ধুদের কাছ থেকে বিভিন্ন পোস্ট আসতে পারে যার অনেক কিছুই আপনার বিরক্ত লাগতে পারে। এই বিরক্তিকর পোস্টগুলোকে আপনার নিউজ ফিড থেকে লুকিয়ে রাখতে পারেন। এজন্য আপনার হোম পেজের বাম সাইডে News Feed-এ মাউস রেখে পেন্সিল আইকন ক্লিক করে edit settings-এ ক্লিক করলে। একটা উইন্ডো আসবে। এখানে আপনি বিরক্তিকর apps, পোস্ট লুকিয়ে রাখতে পারবেন।

ফেসবুকের ছবিতে বন্ধুদের ট্যাগ করা:

ফেসবুক বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক সাইট। এখানে ভিডিও এবং ছবি শেয়ার করা যায় তেমনই এসব ছবিতে বন্ধুদেরকে ট্যাগ করা যায়। একটি গ্রুপ ছবি যদি বিভিন্ন বন্ধুকে ট্যাগ করতে চান তাহলে ছবিটি আপলোড করে ছবিটির উপরে ক্লিক করে প্রদর্শন করুন। এবার নিচের Tag This Photo এ ক্লিক করে যে বন্ধুতে ট্যাগ করতে চান ছবির সেই যায়গাই ক্লিক করলে বক্স এবং ডানে ট্যাগ উইন্ডো আসবে। যে বন্ধুকে ট্যাগ করতে চান উক্ত বন্ধু যদি আপনার ফ্রেন্ড লিষ্টে থাকে তাহলে তা নির্বাচন করুন, আর যদি না থাকে তাহলে Type any name or tag: এ বন্ধুর নাম লিখে Tag বাটনে ক্লিক করুন। এভাবে ইচ্ছামত বন্ধুদেরকে ট্যাগ করতে পারবেন। শেষে Done Tagging এ ক্লিক করে ট্যাগ শেষ করুন।
আপনি যে যে বন্ধুদেরকে ট্যাগ করেছেন সেই সেই বন্ধুর ওয়ালে আপনার ট্যাগ করা ছবি প্রদর্শিত হবে। আপনি চাইলে এভাবে অন্যের ফটো এ্যালবামে নিজেরও বা অন্যদেরকেও ট্যাগ করতে পারবেন। একইভাবে নোটে এবং ভিডিওতে ট্যাগ করা যায়।

বাংলাতে ফেসবুকের ইন্টারফেস

সমপ্রতি ফেসবুকের ভাষার তালিকায় বাংলা ভাষা যুক্ত করা হয়েছে। ইতিপূর্বে এ্যাপলিকেশন দ্বারা বাংলা ইন্টাফেস দেখা যেতো। বর্তমানে উভয় পদ্ধতিতে বাংলা ইন্টারফেসে ফেসবুক দেখা যাবে। পদ্ধতি ১) ফেসবুকে লগইন করে Accounts Settings এ যান। এবার Language ট্যাবে গিয়ে Primary Language: অংশে বাংলা নির্বাচন করলে কিছুক্ষণের মধ্যে ফেসবুকের চেহারা বাংলাতে রূপান্তরিত হবে। পদ্ধতি ২) এজন্য www.new.facebook.com/translations ঠিকানাতে যান এবং Allow বাটনে ক্লিক করে এ্যাপলিকেশনটি যুক্ত করুন। এবার Set your language ড্রপডাউন থেকে বাংলা নির্বাচন করুন ব্যস কিছুক্ষণের মধ্যে ফেসবুকের সকল ইন্টারফেস বাংলাতে আসবে।

গ্রুপ তৈরী করা এবং যোগ দেওয়া

:
স্ট্যাটাসবারে প্রুফ আইকনে ক্লিক করে বা www.facebook.com/groups.php ঠিকানাতে যান। এবার পছন্দের গ্রুফটির উপরে ক্লিক করে Join this Group এ ক্লিক করে Add group membership? ডায়ালগ থেকে Join এ ক্লিক করে গ্রুফে যোগ দিতে পারেন। আর গ্রুফ থেকে বের হতে Leave Group এ ক্লিক করে Remove group membership? ডায়ালগ থেকে Remove এ ক্লিক করলেই হবে। এছাড়াও নিজের একটি গ্রুফ তৈরী করতে চাইলে গ্রুফ পেজ থেকে +Create a new Group বাটনে ক্লিক করে পরবর্তী পদক্ষেপ অনুসরণ করুন।

ব্লগের পোস্ট ফেসবুকে আনা

বর্তমানে ব্লগিং যেমন জনপ্রিয় তেমনই ফেসবুকও। যারা বিভিন্ন ব্লগ সাইটে ব্লগ লিখেন তারা চাইলে সহজেই তাদের পোস্টগুলোকে ফেসবুকে সয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট করতে পারেন। ফেসবুক তাদের ব্যবহারকারীদের একটি ব্লগের তথ্য আপডেট করা সুযোগ দিয়েছে। এই সুবিধা পেতে ফেসবুকে লগইন করে নিচের স্ট্যটাসবার থেকে notes আইকনে ক্লিক করুন অথবা সরাসরি www.facebook.com/notes.php পেজে যান। এখন ডানের Notes Settings অংশে Import a blog » এ ক্লিক করুন। এবার ইমপোর্ট পেজে Web URL: এ ব্লগ সাইটির ঠিকানা লিখে চেক বক্স চেক করে Start Importing বাটনে ক্লিক করলে কিছু পোস্টের প্রিভিউ দেখাবে। এখন নিচের Confirm Import বাটনে ক্লিক করলে সর্বশেষ পোস্ট ফেসবুকে পোস্ট হিসাবে আপপেট হবে এবং পরবর্তীতে উক্ত ব্লগে কোন পোস্ট করলে তা সয়ংক্রিয়ভাবে ফেসবুকে আপডেট হবে। ব্লগ পোস্ট ফেসুবকে আনা বন্ধ করতে চাইলে Notes Settings অংশে Edit Import a blog » এ গিয়ে বন্ধ করা যাবে।

Copyright

This Post Has 2 Comments

  1. Aarman

    How to hack fb id back

    1. admin
      admin

      ইন্টারনেট জগতে অনেক ফেসবুক হ্যাকার রয়েছে এবং ফেসবুক হ্যাক করার কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে যা আমি জানি তবে আমি আপনাকে হ্যাকিং শিখাবো না।। না আমি কখনোই এটা করব না। তবে আমি আপনাকে জানাতে পারি কিভাবে ফেসবুক হ্যাক হয় এবং কিভাবে আপনি আপনার একাউন্ট হ্যাক থেকে বাচাতে পারেন।

Leave a Reply