যে কোন অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করুন মাত্র এক ক্লিকে


যখন আপনি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করবেন আপনি খুব সহজে আপনার মোবাইল কাস্টমাইজড করতে পারবেন। আপনি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের প্রশাসক হিসেবে কাজ করতে সক্ষম হবেন।  আপনি অপারেটিং সিস্টেম সরানো এবং প্রতিস্থাপন করতে পারবেন।


অ্যান্ড্রয়েড  মোবাইল রুট করার অনেক পদ্ধতি রয়েছে। একবার আপনার ফোন যদি রুট করেন তখন আপনি যেভাবে চাইবেন সেভাবে আপনার মোবাইল পরিবর্তন, কাস্টমাইজড করতে পারবেন।
অ্যান্ড্রয়েড রুটিং এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা তাদের অ্যান্ড্রয়েড ফোন,ট্যাবলেট, এবং অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম এর উপর সম্পূর্ণ কন্ট্রোল রাখতে পারবেন।

রুট শুধু আপনার ফোনের ব্যাটারি লাইফ এবং পারফরম্যান্স বৃদ্ধি করে সাথ সাথে আপনি আন-অফিসিয়াল ভাবে অ্যান্ড্রয়েড ভার্শন আপডেট করতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করার অনেক সুবিধা রয়েছে।


  1. ফোনের স্পিড এবং ব্যাটারি লাইফ বাড়াতে পারবেন।
  2. আগে থেকে ইন্সটল করা সিস্টেম অ্যাপ রিমুভ করতে পারবেন।
  3. ফোনের bloatweare অ্যাপ যেমন ফেসবুক, গুগল ক্রোম ইত্যাদি ডিলিট করতে পারবেন।   
  4. ভিডিও স্ট্রিমিং স্পিড, ওয়াইফাই স্পিড, সিম ডিটেক্টিং স্পিড, এসডি কার্ড রীড/রাইট স্পিড বাড়াতে পারবেন।
  5. নোটিফিকেশন বার কাস্টমাইজড করতে পারবেন।
  6. কাস্টম রম এবং কাস্টম কার্নাল ইন্সটল করতে পারবেন।

  এই রকম আরো অনেক কিছু রয়েছে যা আপনারা ফোন রুট করার পর করতে পারবেন।

যেভাবে যে কোন মোবাইল রুট করবেন ২০১৯


 নোটঃ


  1. রুট করলে আপনার ফোনের ফটো, নাম্বার, অডিও,ভিডিও, ম্যাসেজ এগুলোর কোন ক্ষতি হবে। 
  2. আপনার মোবাইলের ওয়ারেন্টি অকার্যকর হয়ে যাবে।
  3. আনরুট করার জন্য আপনার মোবাইলের kinguser ওপেন করে সেটিং থেকে রুট পারমিশন রিমুভ করে দিবেন।

(এই পোস্টে কম্পিউটার এবং কম্পিউটার ছাড়া উভয় প্রকার ট্রিক রয়েছে)

পদ্ধতি-১ যেভাবে kingoRoot ব্যবহার করে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করবেন


Kingo Root হল ওয়ান ক্লিক রুট। এটা উইন্ডোজ কম্পিউটার এর জন্য ডিজাইন করে তৈরি করা হয়েছে।
আপনি kingo root ব্যবহার করে যে কোন অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল এক ক্লিকে রুট করতে পারবেন এবং সাকসেস রেট ৮০-৯০%।

#১ প্রথমে USB Debugging Mode অপশনটা চালু করুন। Setting<Developer<USB Debugging।
সাধারনত DEVELOPER অপশটা লুকানো থাকে এজন্য ডেভালপার অপশন চালু করতে যারা ৪.২.২ এর উপরের ভার্শন ব্যবহার করেন তারা Setting<about phone<Build number এর উপর ৭ বার ক্লিক করুন। ডেভালপার অপশন চালু হয়ে যাবে।



#২ এখন আপনার PC তে kingo root  ডাউনলোড করুন।
ইন্সটল করার পর আপনার সামনে নিচের মত করে একটি উইন্ডো আসবে।

 
#৩ এখন আপনার মোবাইল কম্পিউটারের  সাথে কানেক্ট করুন এবং রুট এ ক্লিক করুন।


#৪ এখন আপনার মোবাইলে অটোমেটিক SuperSu ইন্সটল হয়ে যাবে। রুট চেক করতে এখান থেকে রুট চেকার অ্যাপ ইন্সটল করুন। 
যদি আপনি এই পদ্ধতিতে মোবাইল রুট করতে সক্ষম না হন তাহলে নিচের পদ্ধতি অনুসরন করুন।

পদ্ধতি-২ যেভাবে VRroot ব্যবহার করে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করবেন

#১ প্রথমে VRroot ডাউনলোড করে ইন্সটল করুন।
#২ আপনার মোবাইলে USB Debugging মোড চালু করুন(ডেভালপার অপশন থেকে)
#৩ মোবাইল কম্পিউটারের সাথে কানেক্ট করুন এবং রুট এ ক্লিক করুন।     
#৪ কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন, আপনার মোবাইল রুট হয়ে গেলে কম্পিউটার থেকে ডিসকানেক্ট করুন।
রুট চেক করতে যে কোন একটি রুট চেকার অ্যাপ ব্যবহার করুন।     

পদ্ধতি-৩ Unlock Root দিয়ে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করুন।

রুট করার জন্য তাদের নিজস্ব পদ্ধতি রয়েছে। আপনি তাদের পদ্ধতি ব্যবহার করে যে কোন মোবাইল রুট করতে পারবেন। তাদের পদ্ধতিতে মোবাইল রুট করতে চাইলে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে নির্দেশনা দেখে নিতে পারেন।   

পদ্ধতি-৪ FramaRoot দিয়ে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করুন
 
FramaRoot দিয়ে আপনি কম্পিউটার ছাড়াই অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রুট করতে পারবেন৷
প্রথমে framaroot আপনার মোবাইলে ইন্সটল করুন। এরপর ওপেন করুন।
আপনি এখানে তিনটি অপশন দেখতে পাবেন
>install superSu
>install superUser
>Unroot
 আপনি install superSu তে ক্লিক করুন এবং অল্প সময়ের মধ্যে আপনার মোবাইলে superSu বাইনারি ইন্সটল হয়ে যাবে ।

আর যদি আনরুট করতে চান তাহলে unroot অপশনে ক্লিক করলেই হয়ে যাবে।

অন্যান্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ দিয়ে

উপরের পদ্ধতিগুলো বাদেও অনেক অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ রয়েছে যেগুলো দিয়ে ইউজাররা খুব সহজে তাদের মোবাইল রুট করতে পারবেন।

#১ One Click root ব্যবহার করে

One Click Root হল দারুন এবং একটি মজার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ যেটা দিয়ে আপনি আপনার মোবাইল রুট করতে পারবেন। এই অ্যাপটির ইন্টারফেস অনেক সুন্দর এবং নামের সাথে মিল রেখে আপনি খুব সহজে আপনার মোবাইল রুট করতে পারবেন।

#২ TowelRoot     

 যদি আপনার মোবাইল রুট করার জন্য একটি বিশ্বাসযোগ্য অ্যাপ খুজে থাকেন তাহলে towelroot হল সেই অ্যাপ৷ এটি দিয়ে আপনি superuser access পাবেন। যদিও এই অ্যাপটি samsung এবং htc ডিভাইসগুলোতে কাজ করে না।

#৩ Root master

আপনার যদি কোন টেকনিক্যাল জ্ঞান না থাকে যে কিভাবে রুট করবেন তাহলে root master আপনার জন্য। এই অ্যাপটি ক্লিন এবং ফ্রেস এবং আপনার একটি ট্যাবে মোবাইল রুট হয়ে যাবে।


আশাকরি এই টিউটোরিয়াল এর সাহাজ্যে আপনি আপনার মোবাইল রুট করতে পারবেন। রুট এর সুবিধার কথা চিন্তা করে মোবাইল রুট করতে চান, কিন্তু মনে রাখবেন রুট করার আগে সবকিছু জেনে বুঝে সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে তারপর মোবাইল রুট করবেন। 
এই বিষয়ে কোন সাহায্য লাগলে কমেন্টে জানাবেন অথবা আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আমি যত তারাতাড়ি সম্ভব সাহায্য করার চেস্টা করব। 
      

Post a Comment

0 Comments