স্কিটো সিম কি? সুবিধা কি? কোথায় পাবেন? দাম কত?

স্কিটো সিম কী?

স্কিটো সিম (Skitto) হচ্ছে গ্রামিনফোনের স্পেশাল প্যাকেজ। এটি প্যাকেজ হলেও আলাদা সিমের মতোই সকল সার্ভিস দিয়ে থাকে।

স্কিটো সিম কি?
skitto sim

আপনি স্কিটো সিম কিনলে গ্রামিনফোনের থেকে কোন সহযোগিতা পাবেন না। গ্রামিনফোনের স্কিটো সিমের জন্য আলাদা হেল্পলাইন রয়েছে।

স্কিটো হেল্পলাইন থেকেই সকল সার্ভিস পাবেন। এই সিম মূলত ইন্টারনেট সিম হিসেবে পরিচিত। খুব কম দামে এই সিমে ইন্টারনেট কিনা যায়।

এই সিমের সকল কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে আপনাকে স্কিটো এপ ব্যবহার করতে হবে। এই এপ দিয়েই ইন্টারনেট প্যাক কিনা, মোবাইল রিচার্জ, ব্যালেন্স চ্যাক করা সহ সকল কিছু করতে পারবেন।

স্কিটো সিমের নম্বর সিরিজ গ্রামিনফোনের মত 017 এবং 013

স্কিটো সিমের সুবিধা

গ্রামিনফোনের স্কিটো সিমের সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে কম দামে ইন্টারনেট সেবা। এই সিমটি বিশেষভাবে শিক্ষার্থীদের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এতে পাবেন হাই স্পীড ইন্টারনেট তাও আবার পানির দামে। স্কিটো যখন যাত্রা শুরু করেছিল তখন ইন্টারনেট প্যাকের দাম খুব কম ছিল।

সিমের ইন্টারনেট ব্যালেন্স চ্যাক অন্যান্য অপারেটরদের অভিযোগের কারণে ও বিটিআরসির নির্দেশনায় তাতে কিছু পরিবর্তন আসে। এখন আগের সেই প্যাক গুলো না থাকলেও নতুন প্যাক গুলোও খারাপ নয়।

বর্তমানে স্কিটো সিমে মোট প্রমো ডিলস প্যাক রয়েছে। মূলত প্রমো ডিলসগুলোর দামই কম।

রেডি প্যাকগুলোর সাধারন দাম। প্রমো ডিলসগুলো খুবি সাশ্রয়ী। নিচে বর্তমান (২৪/০১/২০১৯) প্রমো ডিলসগুলো দেওয়া হলো।
১.জ্যাকেটঃ ৮ জিবি/ ১৯৮ টাকা মেয়াদ ১ মাস
২.সুয়েটারঃ ৩ জিবি/৯৮ টাকা, মেয়াদ ১ মাস
৩.ভাপা পিঠাঃ ৪ জিবি/৪৯ টাকা, মেয়াদ ৪ দিন
৪.কম্বলঃ ১২ জিবি/২৮৯ টাকা, মেয়াদ ১ মাস
৫.ফুলকপিঃ ১ জিবি/২৯ টাকা, মেয়াদ ৫ দিন
৬.কুয়াশাঃ ২ জিবি/৩৩ টাকা, মেয়াদ ২ দিন
৭.গরম চাঁঃ ১.৫ জিবি/৫৩ টাকা, মেয়াদ ১০ দিন

সিমের ইন্টারনেট প্যাক স্কিটো সিমে ইন্টারনেট প্যাকের সাথে কথা বলাতেও পাবেন স্পেশাল কল রেট।

যেকোন সিমে মিনিটে সকল প্রকার ভ্যাট সহ কল রেট মাত্র ৫০ পয়সা। তাও আবার ১ সেকেন্ড পালস।

স্কিটো বলছে কয়েকদিন পরপর (সাধারণত ৩ মাস) তাদের প্রমো ডিলস গুলো পরিবর্তন হবে। তবে নতুন যে প্যাকগুলো আসবে সেগুলোতেও ইন্টারনেটের মূল্য অনেক কম থাকবে।

স্কিটো সিমের অসুবিধা

প্রথমত এই সিমের প্রধান সমস্যা হচ্ছে এই সিম সহজে খুঁজে পাওয়া যায়না।

শুধুমাত্র গ্রামিনফোন সেন্টারে গেলেই স্কিটো সিম পাওয়া যায়। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই গ্রাহকদের অভিযোগ তারা নির্ধারিত সেন্টারে গিয়েও সিম পাচ্ছেন না। এই সিমে ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ে কিছু সমস্যা এখনো রয়ে গেছে। রিচার্জ করা নিয়ে আপনি পড়বেন মহা ঝামেলায়। কোন রিচার্জের দোকানে এই সিমে লোড করতে পারবেন না। অনেক দোকানদার এই সিম সম্পর্কে জানেন না। যদিও জিপি ফেক্সিলোড দোকান থেকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় এই সিমে রিচার্জ করতে হয়।

এছাড়া বিকাশ,রকেট থেকে পেমেন্ট অপশন থেকে রিচার্জ করতে হয়।

কোথায় পাবেন এই স্কিটো সিম?

শুধুমাত্র গ্রামিনফোন সেন্টারে গেলেই স্কিটো সিম পাওয়া যায়। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই গ্রাহকদের অভিযোগ তারা নির্ধারিত সেন্টারে গিয়েও সিম পাচ্ছেন না। স্কিটো বিভিন্ন জায়াগায় ক্যাম্পেইন করে সিম বিক্রি করে। সেখান থেকে সিম কিনতে পারবেন। সিমের মূল্য ১২০ টাকা হলেও বিশিরভাগ জায়গায় আপনাকে ১৫০-২০০ টাকাও দিতে হতে পারে।

সিমের মূল্য নিয়ে গ্রাহকদের অভিযোগের শেষ নেই। যা স্কিটোর ফেসবুক পেজে গেলেই দেখা যায়।

স্কিটো সিমে নেটওয়ার্ক কোথা থেকে পাবেন?

স্কিটো সিমে নেটওয়ার্ক পেতে কোন সমস্যা নেই। কারণ এই সিমের নেটওয়ার্ক গ্রামিনফোনের টাওয়ার থেকে আসে।

আর যেহেতু গ্রামিনফোন বাংলাদেশের এক নম্বর নেটওয়ার্ক, তাই স্কিটোর নেটওয়ার্ক পেতে কোন সমস্যা নেই।

স্কিটো হেল্পলাইন

 

যেকোন স্কিটো সিম থেকে কল ১২১ নম্বরে কল করে গ্রাহক সেবা পাওয়া যাবে। আর অন্য অপারেটর থেকে 01701000121 নম্বরে কল করে সেবা নেওয়া যাবে। স্কিটো এপে লাইভ চ্যাট অপশন থাকলে আমি সেটা থেকে তাদের সাড়া পায়নি। ১০-১৫ মিনিট আমি অপেক্ষ করেছি। তারপরও তাদের রিপ্লাই পাইনি। তাই লাইভ চ্যাট অপশন থেকে হয়তো সেবা পাবেন না।

আমি এই বিষয় নিয়ে অভিযোগ করেছিলাম। তারা বলেছে এই বিষয়টি দেলহা হবে।

স্কিটো ওয়েবসাইট

 

যদিও স্কিটো গ্রামিনফোনের প্যাকেজ। কিন্তু গ্রামিনফোনের ওয়েবসাইটে স্কিটো নিয়ে কোন লিংক বা আর্টিকেল নেই।স্কিটোর আলাদা ওয়েবসাইট আছে। আর তা হলো skitto.com

যেভাবে স্কিটো সিমে রিচার্জ করবেন

 

ফ্লেক্সিলোড দোকান থেকে লোড

এই স্কিটো সিমে রিচার্জ করতে আলাদা পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। ফেক্সিলোড দোকানদারকে নিচের নিয়ম অনুসারে রিচার্জ করতে বলুন। *৬৬৬*skitto number*Amount*Flexiload pin#

নিবন্ধ বা আর্টিকেল লিখে আয় করুন | আউটসোর্সিং ও ব্লগিং |

অর্থাৎ গ্রামিনফোনের রিচার্জের জন্য দেওয়া ২২২ এর জায়গায় স্কিটোর জন্য ৬৬৬ দিতে হবে।

বিকাশ থেকে স্কিটো লোড

বিকাশ থেকে স্কিটো লোড করাও একটা ঝামেলার বিষয়। রিচার্জ অপশন থেকে স্কিটো লোড করতে পারবেন না। পেমেন্ট অপশন থেকে লোড করতে হবে। বিকাশের *২৪৭# ডায়েল করুন। ৩ নম্বরে পেমেন্ট অপশনে যান। সেখানে স্কিটো মার্চেন্ট নম্বর (০১৭১২৩৪৫৩৫৬) দিন। রিচার্জ এমাউন্ট দিন। এরপর কাউন্টার নম্বর ও রেফারেন্স নম্বর ১ দিন। আপনার বিকাশ পিন দিয়ে কনফার্ম করুন। Transaction ID টি সংরক্ষণ করুন। এবার আপনার স্কিটো এপে লগিন করুন। এরপর Reload অপশনে ক্লিক করুন।

recharge এরপর আপনার স্কিটো নম্বর ও রিচার্জের এমাউন্ট দিন। অবশ্যই যেই এমাউন্ট বিকাশে দিয়েছিলেন সেই এমাউন্টই দিতে হবে।

রিচার্জ এমাউন্ট বিকাশ এরপর pay online অপশন সিলেক্ট করুন।

online এরপর বিকাশ সিলেক্ট করুন।
বিকাশ পেমেন্ট দেওয়ার সময় যে Transaction ID পেয়েছিলেন খালি বক্সে ঐ ট্রানজেকশন আইডি দিয়ে সাবমিট দিলেই রিচার্জ হয়ে যাবে।
Transaction ID input

স্কিটো অ্যাপ দিয়ে ব্যালেন্স চেক

 

স্কিটো অ্যাপে ঢুকলেই আপনি আপনার ব্যালেন্স দেখতে পাবেন চেক করতে পারবেন। আর সোয়াইপ করলেই ইন্টারনেট ব্যালেন্স সহ আরো বিভিন্ন অপশন দেখতে পাবেন।

ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে ব্যালেন্স চেক

 

ইউ এসএসডি কোড ডায়াল করেও আপনি খুব সহজে বিভিন্ন প্রকার ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। কোডগুলো নিচে দেওয়া হলোঃ

মোবাইল টাকা ব্যালেন্সঃ *121*1*1#
মিনিট ব্যালেন্সঃ *121*1*2#
ইন্টারনেট ব্যালেন্সঃ *121*1*3#
এসএমএস ব্যালেন্সঃ *121*1*4#

এখনই স্কিটো অ্যাপ ডাউনলোড করুন।

বিস্তারিত জানতে

Leave a Reply